অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরাতকে ডিভোর্সের নোটিশ

কলকাতা চলচ্চিত্র অঙ্গনের উঠতি তারকা আর এক নামী মডেল নুসরাত জাহানের ঘটা করে বিয়ে হয়েছিল কলকাতারই এক অবাঙালি ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে। সেটা ২০১৯ সালের ১৯ জুন। সেই বিয়ে হয়েছিল সুদূর তুরস্কে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের হাতে গোনা কিছু সদস্য ও বন্ধুবান্ধব। এই বিয়ের পর নুসরাত-নিখিল কলকাতায় এসে আয়োজন করেছিলেন বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ টালিউডের একঝাঁক তারকা এবং কলকাতার বিশিষ্টজনেরা। নুসরাতের ডাকনাম রুহি।

তুরস্কে বিয়ে করেন নুসরাত জাহান ও নিখিল জৈন। ছবি: সংগৃহীত
তুরস্কে বিয়ে করেন নুসরাত জাহান ও নিখিল জৈন। ছবি: সংগৃহীত

সেই রুহি-নিখিলের বিয়ে আজ ভাঙার পথে। নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈন ডিভোর্সের নোটিশ দিয়েছেন নুসরাতকে। গতকাল সোমবার রাতে এ খবর স্থানীয় এক পত্রিকায় ফাঁস করার পর নিখিল জৈন বলেছেন, এ ব্যাপারে তাঁর যা বলার আছে, তা পরে বলবেন।

নুসরাত জাহান
নুসরাত জাহান

কিন্তু কেন ঘটল তাঁদের দাম্পত্য জীবনে এমন ঘটনা? এ নিয়ে টালিউডের ছবিপাড়ায় কান পাতলে শোনা যায় নুসরাতের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না নিখিল জৈনের। নুসরাতের ‘স্বাধীন জীবন’ মেনে নিতে পারছিলেন না নিখিল জৈন। নুসরাত সব সময় নিখিল জৈনের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতেন। দুজনের সম্পর্কও ছিল গভীর।বিজ্ঞাপন

নুসরাত হঠাৎ করে টালিউড তারকা যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে তা মেনে নিতে পারেননি নিখিল। শুধু তা–ই নয়, নুসরাত-যশের আজমির শরিফে গিয়ে একসঙ্গে ছুটি কাটানোকে মেনে নিতে পারেননি নিখিল জৈন। এ নিয়ে অশান্তি দেখা দেয় তাঁদের দাম্পত্য জীবনে। অবশেষে নিখিল বিবাহবিচ্ছেদের নোটিশ দেন।

নুসরাত জাহান
নুসরাত জাহান

নুসরাত শুধু একজন চিত্রতারকাই ছিলেন না; তিনি ছিলেন কলকাতার মডেলও। এ ছাড়া তাঁর আরেকটি পরিচয় ছিল, তিনি লোকসভার একজন সাংসদ। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে উত্তর ২৪ পরগনার বশিরহাট কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিটে জয়লাভ করেন তিনি। নুসরাতের জন্ম ১৯৯০ সালের ৮ জানুয়ারি। কমার্সে ডিগ্রি নেন ভবানীপুর কলেজ থেকে। নুসরাতের সঙ্গে নিখিল জৈনের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ২০১৮ সালে। তাঁদের সেই সম্পর্কের জেরে বিয়ে হয় ২০১৯ সালের ১৯ জুন। সেই বিয়ের বয়স দুই বছর কাটতে না কাটতেই ভাঙন ধরল দাম্পত্য জীবনে। এখন এই দম্পতি বিবাহবিচ্ছেদের মুখোমুখি।

যদিও এর আগে তাঁদের দাম্পত্য নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কিছু খবর ছড়িয়ে পড়লে তখন নুসরাত সাংবাদিকদের বলেছিলেন, তিনি তাঁদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনো কথা বলতে চান না​।

নুসরাত জাহান
নুসরাত জাহান

নুসরাত প্রথম চলচ্চিত্রে পা রাখেন ২০১১ সালে পরিচালক রাজ চক্রবর্তীর ‘শত্রু’ ছবিতে। তারপর এক এক করে তিনি অভিনয় করেন ২২টি ছবিতে। ‘শত্রু’র পর নুসরাত অভিনয় করেন ‘খোকা-৪২০’, ‘খিলাড়ি’, ‘অ্যাকশন’, ‘যোদ্ধা’, ‘সন্ধ্যে নামার আগে’, ‘জামাই-৪২০’, ‘হর হর ব্যোমকেশ’, ‘পাওয়ার’, ‘কেলোর কীর্তি’, ‘লাভ এক্সপ্রেস’, ‘জুলফিকার’, ‘হরিপদ ব্যান্ডওয়ালা’, ‘ওয়ান’, ‘আমি যে কী তোমার’, ‘বলো দুর্গা মায় কী’, ‘উমা’, ‘ক্রিসক্রস’, ‘নেকাব’, ‘অসুর’, ‘এসওএস কলকাতা’ ও ‘ডিকশনারি’ ছবিতে। সর্বশেষ ২০২১ সালের ছবি ‘ডিকশনারি’।

নুসরাত জাহান
নুসরাত জাহান

জানা গেছে, নুসরাতের সঙ্গে নিখিলের সম্পর্কে ভাটা পড়লেও এখনো নিখিলের সঙ্গে নুসরাতের ছোট বোন নুজহত জাহানের সম্পর্ক অটুট রয়েছে।