আজ - মঙ্গলবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি, (শীতকাল), সময় - ভোর ৫:৪৩

খুলনায় ২২১ কোটি টাকার রেকর্ড বিনিয়োগ!

স্টাফ রিপোর্টার : চলতি মাসেই খুলনা অঞ্চলে বেসরকারি খাতে প্রায় ২২১ কোটি টাকার রেকর্ড বিনিয়োগ হয়েছে। যা গত কয়েক মাসের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এর মধ্যে গ্যাস ও সিরামিক বিল্ডিং কমপ্লেশন খাতে সর্বোচ্চ ১৯৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে। এছাড়া ফ্রোজেন ফুড প্রসেসিং, জুট বেইলিং ও অটোমেটিক ব্রিকস খাতে বিনিয়োগ বেড়েছে। এইসব প্রতিষ্ঠানে এ মাসেই কর্মসংস্থান হয়েছে ৯৬৩ জনের। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, খুলনা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।
জানা যায়, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের আওতায় ৩৪টি নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন হয়েছে। প্রস্তাবিত বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল ১৬৮৬ কোটি টাকা। ওই অর্থবছরে প্রতিমাসে গড়ে ১৪০ কোটি টাকা বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ হয়। তবে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের শুরুতে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়েছে। চলতি সেপ্টেম্বর মাসেই বিনিয়োগের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২২১ কোটি ৫৫ লাখ টাকা।
তথ্য অনুযায়ী, ঝিনাইদহের মহেশপুর সড়াতলায় তুষার সিরামিকস্ লিমিটেডে এ মাসে বিনিয়োগ হয়েছে ১৯৫ কোটি টাকা। এছাড়া খুলনার দৌলতপুরে মহসিন রোডে মেসার্স তাসফিয়া জুট ট্রেডিং, ডুমুরিয়ার গুটুদিয়া লাইলনবিল পাবলায় এডিজে এগ্রো ফ্রিচার লিমিটেডসহ নড়াইল, যশোর, চুয়াডাঙ্গার নতুন ৭টি প্রতিষ্ঠানে আরো ২৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে। জানা যায়, এ সময়ে নিবন্ধন সংশোধন বাবদ অতিরিক্ত বিনিয়োগ হয়েছে খুলনার খানজাহান আলী থানার শিরোমণি এলাকার জয় ফিড মিলস লিমিটেড, রপ্তানিমুখি প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং খাতে খুলনা সিটি বাইপাস রোডের এসআর ফ্লেক্সোপ্যাক লিমিটেড ও মোংলার দুবাই বাংলা এলপি গ্যাস লিমিটেড ও যশোরের বিস্কুট অ্যান্ড বেকারী খাতে সেন্ট্রাল মার্কেটিং কোম্পানিতে।
বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এর খুলনা বিনিয়াগ কর্মকর্তা মো. রবিউল ইসলাম জানান, খুলনায় শিল্পবান্ধব পরিবেশ গড়ে ওঠায় বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বহুগুণ বেড়েছে। বিভিন্ন স্থানে অর্থনৈতিক জোন ও নতুন শিল্প এলাকা গড়ে উঠছে। ফলে কর্মসংস্থান যেমন বাড়ছে, তেমনি অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হচ্ছে খুলনা অঞ্চল। তিনি বলেন, বিনিয়োগ বোর্ডের পক্ষ থেকে নিয়মিত বিফ্রিং ও সেমিনারের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের উৎসাহিত করা হয়।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি ডিসিপ্লিনের প্রধান প্রফেসর ড. শাহনেওয়াজ নাজিমুদ্দিন আহমেদ জানান, সরকারি-বেসরকারি বিনিয়োগের কারণে ব্যাপক কর্মস্থলে বদলে যাচ্ছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনীতি। খুলনা, বাগেরহাট, যশোরের বৃহৎ অংশ জুড়ে শিল্পায়ন ও বিনিয়োগের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। সড়ক, রেল ও নৌপথে পণ্য পরিবহণের সুবিধা, সহজলভ্য শ্রম, প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার মতো পর্যাপ্ত জমি- এসব কারণে এখানে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ গড়ে উঠেছে।
খুলনা চেম্বার অব কমার্সের সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস জানান, এরই মধ্যে খুলনার রূপসা জোন কেন্দ্রীয় অসংখ্য শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এখানে জাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান, সিমেন্ট ফ্যাক্টরী, ফ্রোজেন ফুড, অটোমোবাইল রিপেয়ারিং ও গ্যাস বোতলজাতকরণ শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। তিনি বলেন, খুলনার বটিয়াঘাটা ও তেরখাদায় অর্থনৈতিক জোন গড়ে তোলা হচ্ছে। পদ্মা সেতু চালু হলে এ অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যে গতি ফিরবে।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত