আজ - বৃহস্পতিবার, ২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - রাত ১২:১০

চৌগাছায় ছেলে কর্তৃক পিতা হত্যা ছেলে আটক ও হত্যা কাজে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার

খানজাহান আলী 24/7 নিউজ : চৌগাছা থানাধীন ফুলসারা ইউনিয়নের দূর্গাবরকাঠি এলাকা থেকে আহাদ আলী (৪৫) নামে একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে পুলিশি জিঙ্গাসাবাদের পর নিহত ঐ ব্যাক্তির ছেলে হারুন অর রশিদ সোহান (১৯) হত্যার দায় স্বীকার করলে পুলিশ তাকে আটক করেছে।

এর আগে সকালে চৌগাছা থানাধীন ফুলসারা ইউনিয়নের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছোট ছেলে আহাদ আলী (৪৫) এর মৃত দেহ উদ্ধার করে চৌগাছা থানা পুলিশ।

খুনের দায় স্বীকার করে হারুন অর রশিদ জানায়, ৪/৫ মাস পূর্বে তার পিতা আহাদ আলী মূত্রথলী অপারেশন করেন এবং কেন্সারে আক্রান্ত হয়। চিকিৎসা খরচে মাঠের জমাজমি বিক্রি করে এখন নিঃস্ব। এরপরেও পিতা ও মাতার সাথে প্রায় সময় ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকে। বিভিন্ন সময় তাকেও গালমন্দ করতো। ঘটনার আগে তার বাবা জমি বিক্রি করে ট্রাক কিনার সিদ্ধান্ত নেয়। এতে বাঁধা দেয় ছেলে ও স্ত্রী। এই নিয়ে দুই দিন আগে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। এরপরেই ছেলে সিদ্ধান্ত নেয় বাবাকে মেরে ফেলবে। পরিকল্পনা মোতাবেক ধারালো ছুরি বাঁশের লাঠিতে বেঁধে ঘরের পাকা দেয়ালে জানালার ইটের ফাঁকা দিয়ে গভীর রাতে তার পিতা বুকে ছুরি মারে।

এতে ছুরি বিদ্ধ হয়ে কাতরাইতে কাতরাইতে খাটের নিচে পড়ে প্রচন্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু বরণ করে আহাদ আলী। সকালে নিহত আহাদ আলীর স্ত্রী ঘুম থেকে উঠে ডাকতে গেলে সাড়াশব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে মৃত দেখতে পেয়ে ছেলে ও আশে পাশের প্রতিবেশীকে ডাকাডাকি করে। ছেলে গোপনে হত্যা করে ছুরি বালিতে পুঁতে রেখে দিয়ে তার ঘরে ঘুমায়। বিষয়টি ক্লুলেস হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ডিবির পারিপার্শ্বিক তদন্ত ও জানালার পাশে পায়ের ছাপ দেখে ছেলে সন্দেহ হলে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে ছেলে হত্যায় দায় স্বীকার করে এবং হত্যাকাজে ব্যআহৃত ছুরিটি বের করে দেয়।

সংবাদ পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক সার্কেল জনাব বেলাল হোসেন সহ ডিবি’র পুলিশ পরিদর্শক রুপন কুমার সরকার, পিপিএম, এসআই মফিজুল ইসলাম, পিপিএম ঘটনাস্থলে পৌছে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার পারিপার্শ্বিকতায় ছেলে ও স্ত্রীকে সন্দেহ করে ডিবি অফিসে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে এসব তথ্য বেরিয়ে আসে।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত