আজ - রবিবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি, (হেমন্তকাল), সময় - রাত ৩:৪৭

নাটোরে জীবন্ত মানুষকে কবরে ঢুকিয়ে প্রতারণা, আটক ৩

বগুড়া জোনাল অফিস,নাটোর প্রতিনিধি: নাটোরের বাগাতিপাড়ায় জাদু খেলার নামে জীবন্ত মানুষকে কবরের ভেতরে ঢুকিয়ে প্রতারণা করে অর্থ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার রহিমানপুর গ্রামে এমন অভিযোগে প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- প্রতারক দলের প্রধান মনোয়ার হোসেন এবং দুই সহযোগী মো. পলাশ ও মো. সেলিম। তাদের মধ্যে মনোয়ার পার্শ্ববর্তী রাজশাহী জেলার আড়ানী নূরনগর গ্রামের মৃত শাহ মোসলেম দারোগার এবং মো. পলাশ একই গ্রামের মৃত পিয়ার আলীর ছেলে। এছাড়া  মো. সেলিম একই এলাকার ঝিনা গ্রামের মাসুদের ছেলে। বাগাতিপাড়া মডেল থানার এসআই খাইরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার বিকেলে রহিমানপুর বাজার থেকে কিছু দূরে গ্রামের ভেতরে জাদু খেলার নামে মনোয়ার ও তার দুই সহযোগী মানুষদের প্রতারণা করছিল। সেখানে রাস্তার পাশে নিজেরাই কৃত্রিম কবর বানিয়ে সহযোগী সেলিমকে কবরে ঢুকিয়ে টিন দিয়ে তার ওপরে মাটি চাপা দেয়। এরপর গ্রামের নারী-পুরুষকে আর্থিক সহযোগিতা করার অনুরোধ করেন। সহযোগিতা না করলে কবরের ভেতরের মানুষটি সত্যি সত্যি মারা যাবে এমন কথা বলে প্রতারণা করে। তিনি আরও বলেন, সাধারণ মানুষ মনোয়ারের কথায় প্রতারিত হয়ে তাদেরকে অর্থসহ ধান, চাল দিতে থাকে। ঘটনাটি স্থানীয়দের মাধ্যমে গোপন সংবাদ পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। সেসময় দ্রুত মাটি খুঁড়ে কবর থেকে সহযোগী সেলিমকে উদ্ধার করা হয়। এরপর তাদের তিনজনকেই আটক করে থানায় নেয়া হয়। এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে মনোয়ার হোসেনের গ্রামের একজন জানিয়েছেন, মনোয়ার দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন স্থানে জাদু দেখিয়ে বেড়ায়।   এ ব্যাপারে বাগাতিপাড়া মডেল থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ পিপিএম বলেন, জীবন্ত মানুষকে কবরে ঢুকিয়ে দীর্ঘ সময় মাটি চাপা দিয়ে রাখায় ওই ব্যক্তির প্রাণ ঝুঁকির মধ্যে ছিল। তাছাড়াও বিভিন্ন থানায় মনোয়ারের বিরুদ্ধে দুটি ও পলাশের বিরুদ্ধে ৫টি মাদকের মামলা রয়েছে। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত