আজ - বৃহস্পতিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি, (শরৎকাল), সময় - সকাল ৮:৪৫

নিহত জঙ্গী আব্দুল্লাহ যশোর এমএম কলেজের ছাত্র- ২ নারী জঙ্গীর আত্মসমর্পণ।

আবু সালাম, স্টাফ রিপোর্টার : নরসিংদিতে অপারেশন গার্ডিয়ান নট’এ নিহত জঙ্গি আবদুল্লাহ আল বাঙালির বাড়ি কালীগঞ্জে। তিনি যশোর শহরের একটি মেসে থেকে সরকারি এমএম কলেজে পড়তেন আর পাশাপাশি চাকরি করতেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে। সোয়াতের অভিযানে তার স্ত্রী আকলিমাও মারা যান।

নিহত আবদুল্লাহ উপজেলার বেজপাড়া গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে। মা মর্জিনা বেগম।
তবে পরিবার ও এলাকাবাসীর কাছে তিনি গোলাম মোস্তফা ওরফে রুবেল নামে পরিচিত। তার স্ত্রী আকলিমা ঢাকার গাজীপুর এলাকার শহিদুল ইসলামের মেয়ে। তিনি মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলেন।

নরসিংদীর মাধবদীতে সন্দেহভাজন দুই নারী জঙ্গির আত্মসমর্পণের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টানা দুদিনের অভিযান। আত্মসমর্পণকারী দুই নারী ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে একই এলাকার আরেকটি বাড়িতে অভিযানের সময় আত্মঘাতী বোমায় নিহত হন সন্দেহভাজন আরো দুই জঙ্গি।

মাধবদীর শেখেরচর ও গাঙপাড়ের দুটি বাড়ি সোমবার রাত ৮টার দিকে ঘিরে ফেলে নরসিংদী জেলা পুলিশ ও ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা। মঙ্গলবার সকালে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় ঢাকা থেকে যাওয়া সোয়াট টিম।

শেখেরচরের জঙ্গি আস্তানায় মঙ্গলবার বিকেলে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের পর উদ্ধার করা হয় সন্দেভাজন ২ জঙ্গির মরদেহ। অন্যদিকে গাঙপাড়ের বাড়িটি রাতভর ঘিরে রাখে পুলিশ। বুধবার সকালে সেখানে নতুন করে শুরু হয় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ও সোয়াটের অভিযান।

বেলা ৩টার দিকে দুই নারীকে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আসতে দেখা যায়। পরে সোয়াট সদস্যরা বাড়ির ভেতরে ঢুকে বেশ কয়েকটি বোমা নিষ্ক্রিয় করেন।

পুলিশ জানায়, আত্মসমর্পণ করা দুই নারীর নারীর নাম মেঘনা ও মৌ। তারা দুজনেই ঢাকার মানারত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এছাড়া মঙ্গলবার নিহতদের একজন আকলিমাও মানারাত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তার স্বামী আবু আব্দুল্লা আল বাঙ্গালিও মঙ্গলবার আত্মঘাতী বোমায় নিহত হয়েছেন।

এই অভিযানে নিহত আবু আব্দুল্লা আল বাঙ্গালি নব্য জেএমবির মিডিয়া প্রধান ছিলেন বলে দাবি করেছে পুলিশ।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত