পায়ে হেঁটে ২২ টি গ্রামের মানুষের দ্বারে শাহারুল ইসলাম!

নাঈম সাব্বির: পায়ে হেঁটে ২২ টি গ্রামের প্রায় ১০ হাজার হতদরিদ্র মানুষের হাতে হাতে ঈদ সামগ্রী তুলে দিলেন যশোর সদর উপজেলার ৯ নং আরবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম।

পাড়ায় পাড়ায় চেয়ারম্যান শাহারুল।

ইউনিয়নের মালঞ্চি, কুয়েতপাড়া, দূর্গাপুর,নিমতলা, ধোপাখোলা,মন্ডলগাতি,সার গোডাউন, পঞ্চবাঁটি,ট্রেন লাইন বস্তি,খোলাডাঙ্গা,হ্যাচারি পাড়া,কদম তলা,সুজল পুর,কলোনি পাড়া,বড় ভেকুটিয়া,পতেঙ্গালি,বালিয়া ভেকুটিয়া, চাঁনপুর, সিলিমপুর,বাঁশ বাড়িয়া সহ মোট ২২ টি গ্রামে ঈদ সামগ্রী বিতরন করেন তিনি।

মানুষিক স্বস্তি ও যাদের প্রাপ্য তারা সঠিক ভাবে পাচ্ছে কিনা! সেটা জানার জন্যই নিজ হাতে এ কার্যক্রম সম্পাদনার সিন্ধান্ত নেন শাহারুল ইসলাম। ১ টন সেমাই, ১ টন চিনি সহ শাড়ী, লুঙ্গি,পাঞ্জাবি,প্যান্ট,গেন্জি ও নগদ ২ লক্ষটাকা ঈদ সামগ্রী হিসেবে বিতরণ করা হয়।

উল্লেখ্য, শাহারুল ইসলামের ঈদ সামগ্রী বিতরনের অর্থ কোন রাষ্ট্রীয় কোশাগার থেকে নেয়া হয়নি, সম্পূর্ণ নিজের উদ্দ্যোগে ও নিজের ব্যক্তিগত অর্থায়নে ঈদ সমাগ্রী ক্রয় ও বিতরনের খরচ বহন করেছেন চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম।

এছাড়াও ঈদ উপলক্ষে সরকার থেকে পদত্ত ১০ কেজি চাউল প্রাপ্তির ভিজিএফ এর প্রায় ২২০০ কার্ড বিতরন ও করেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে শাহারুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি কোন মন্তব্য করতে চাননি। তিনি বলেছেন, মন্তব্য করবে মানুষ আমি তাঁদের সেবক মাত্র। মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে। নৌকায় ভোট দিন, এ দেশের কল্যাণ করতে চাইলে শেখ হাসিনার বিকল্প কেউ নেই। নেত্রীর জন্য দোয়া করবেন।

মানুষের মাঝে স্বস্তি

অদ্ভুত ব্যাপার হল, শাহারুল ইসলামের আকস্মাৎ পাড়ায় পাড়ায় হাজির হওয়া সাথে আবার ঈদ উপহার, ক্লান্তির ঘোরেই স্বস্তির বাতাস তুলেছে নিভৃত পাড়ায়। সদর উপজেলার সবকয়টি ইউনিয়নের মধ্যে আরবপুর ইউনিয়নই একমাত্র ইউনিয়ন, যার চেয়ারম্যান নিজের পকেট মানুষের জন্য উজাড় করে দিয়েছেন, কোন অনুদানের অপেক্ষা করেননি।