আজ - রবিবার, ৯ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি, (গ্রীষ্মকাল), সময় - সকাল ১১:১৮

প্যারোলে মুক্তি পেয়ে শপথ নিলেন ‘ডিম’ রিপন

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ৬ ঘণ্টার প্যারোলে মুক্ত হয়ে শপথ নিলেন যশোর পৌরসভা নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সাহিদুর রহমান ওরফে ডিম রিপন। মঙ্গলবার বিকালে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে তিনি শপথ নেন।

এদিন বেলা ১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত তাকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়। তিনি একটি হত্যা মামলায় যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন। কারাবন্দি অবস্থায় গত ৩১ মার্চ নির্বাচনে পাঁচ হাজার ১১৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হন।

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার তুহিন কান্তি খান বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আদেশে মঙ্গলবার বেলা ১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সাহিদুর রহমানকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়। তিনি খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে কাউন্সির পদে শপথ গ্রহণ করতে যান। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তাকে আমরা বুঝে পেয়েছি।

এ প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান বলেন, সাহিদুর রহমান রিপন পৌরসভার নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। শপথ গ্রহণের জন্য তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছিলেন। মন্ত্রণালয় তার ৬ ঘণ্টার প্যারোলে মুক্তি অনুমোদন করেছে। আজ  তিনি শপথ নিয়েছেন।

জানা যায়, ২০২০ সালের ১৭ জুলাই রিপনের নেতৃত্বে আরবপুরের আলাউদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ মামলায় গত ২৪ মার্চ রাতে শহরের মণিহার এলাকা থেকে সাহিদুর রহমান ওরফে ডিম রিপনকে গ্রেফতার করে সিআইডি। বর্তমানে তিনি যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি আছেন। রিপন শহরের বারান্দী মোল্যাপাড়া এলাকার বদর উদ্দিনের ছেলে।

এর আগে ২০১৩ সালে যশোর এক নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। ওই মামলার এক নম্বর আসামি নবনির্বাচিত কাউন্সিলর সাহিদুর রহমান ওরফে ডিম রিপন। হত্যাকাণ্ডের ২৯ দিন আগে আরও একবার হামলার শিকার হয়েছিলেন নজরুল ইসলাম। পরদিন তিনি নিজেই ডিম রিপনকে আসামি করে মামলা করেন। আর মামলা করার এক মাসের মধ্যে খুন হন নজরুল ইসলাম। নজরুল ইসলাম হত্যা মামলাসহ অন্তত দেড় ডজন মামলার আসামি ডিম রিপন। হত্যা, মাদক, অস্ত্র, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধে অপরাধী তিনি।

এদিকে মঙ্গলবার বিকালে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে নবনির্বাচিত মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দার গনি খান পলাশ ও কাউন্সিলররা শপথ গ্রহণ করেন। বিভাগীয় কমিশনার ইসমাইল হোসেন তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

গত ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হয় যশোর পৌরসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দার গনি খান পলাশ বিজয়ী হন।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত