আজ - শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - দুপুর ২:৪৯

বদলে যাচ্ছে শ্রুতিকটু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শ্রুতিকটু ও নেতিবাচক নাম পরিবর্তনের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব ফরিদ আহাম্মদ।

রোববার (১২ মার্চ) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ‘জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ ও প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২৩’ প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনেকগুলোর নাম শ্রুতিকটু ও নেতিবাচক। আমরা ইতোমধ্যে এ সব নাম চিহ্নিত করে তা পরিবর্তনের জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি।’

এ নিয়ে নীতিমালা জারি করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘২৩ জানুয়ারি এ বিষয়ে নীতিমালা জারি করা হয়েছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে বিদ্যালয়গুলোকে নতুন করে গেজেট করার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

এ সময় সচিব দাবি করেন, ‘স্বাধীনতার পর এই প্রথম বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিগরি সহায়তায় এবং মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে থেকে ৩৭ হাজার ৫৭৪ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ৩৫ হাজার ২৪ জন শিক্ষক কাজে যোগ দিয়েছেন।’

শিক্ষক বদলি বিষয়ে তিনি বলেন, ‘শিক্ষক বদলি নিয়ে নানা ধরনের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো। এ অবস্থার উত্তরণে ও বদলি কার্যক্রমে গতি আনতে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

‘পদক্ষেপের অংশ হিসেবে বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে অনলাইনে শিক্ষক বদলির সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে’, যোগ করেন তিনি।

 

তিনি আরও বলেন, প্রায় চার লাখ শিক্ষককে দ্রুততম সময়ে বদলির লক্ষ্যে গেল বছরের ২২ ডিসেম্বর অনলাইন বদলি নীতিমালা জারি করা হয়েছে। এ পর্যন্ত অনলাইনে শিক্ষকদের ৫১ হাজার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২১ হাজার ৩০০ জনকে বদলির আদেশ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের চার হাজার ৮৪৫টি আবেদনের পরিবর্তে দুই হাজার ৫৮১ জনকে বদলির আদেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব।

 

এদিকে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপায় রাজধানীসহ সারা দেশে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ পালিত হচ্ছে। রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে সপ্তাহের উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফরিদ আহাম্মদ এবং স্বাগত বক্তব্য দেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত