বন্দুকযুদ্ধে’ কাউন্সিলর একরাম নিহত – দেশ ছাঁড়ছেন এমপি বদি!

রইসুল হক,টেকনাফ প্রতিনিধি : কক্সবাজারের টেকনাফে র‍্যাবের সাথে বন্ধুকযুদ্ধে একরামুল হক নামের এক শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তিনি টেকনাফ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর।

শনিবার (২৭মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে টেকনাফ উপজেলা সদর ইউনিয়নের নোয়াখালী পাড়া এলাকার মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত একরাম টেকনাফ উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি বলে জানা গেছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে র‍্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোঃ রুহুল আমিন বলেন, টেকনাফে ইয়াবা পাচারের খবর পেয়ে নোয়াখালী পাড়ায় একব্যক্তির গতিরোধ করে র‍্যাব। এসময় র‍্যাবকে লক্ষ্য করে ওই ইয়াবা ব্যবসায়ী গুলি ছুঁড়ে। র‍্যাব আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই ইয়াবা ব্যবসায়ী।

তিনি আরো বলেন, এসময় তার কাছ থেকে ১০হাজার পিছ ইয়াবা, একটি দেশীয় তৈরি অস্ত্র ও একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

টেকনাফ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রণজিৎ কুমার বড়ুয়া বলেন, নিহত একরামুল হক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী এবং টেকনাফ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর। রাত ১টার দিকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাতে টেকনাফের মেরিন ড্রাইভ রোডের মিঠাপানিরছড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। র‍্যাবের কক্সবাজার ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

দেশ ছাড়ছেন এমপি বদি!

এমপি বদি

গতকাল রাতে টেকনাফের যুবলীগের সাবেক আহবায়ক ও টেকনাফ পৌর কাউন্সলর একরাম (কমিশনার) এবং এর আগের দিন এমপি বদির বেয়াই আক্তার মেম্বার বন্দৃকযুদ্ধে নিহত হওয়ার ঘটনায় এখন ইয়াবা সম্রাজ্যে তোলপাড় চলছে। এরই মাঝে গত রাত থেকে ইয়াবা গডফাদার বলে আলোচিত সমালোচিত আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন বলে গোজব শুনাযাচ্ছে।

ইতোমধ্যেই ইয়াবা গডফাদাররা ভারত-মিয়ানমারে পালিয়ে গেলেও বদির পরিবারের সদস্যরা ঢাকা- চট্টগ্রামে গা ঢাকা দিয়ে আত্মগোপনে চলে গেছে।তবে এমপি বদির ঘনিষ্টজনেরা বলছেন, তিনি পালিয়ে যাচ্ছেন না। এমপি আব্দুর রহমান বদি ওমরা পালনের জন্য সৌদি আরব যাচ্ছেন।

এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর এমপি বদি আর ভরসা পাচ্ছেনা। তিনি বলেন,আওয়ামী লীগের কক্সবাজারের সংসদ সদস্য বদির বিরুদ্ধে যদি মাদকের অভিযোগ প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে বদির বেয়াই যেমন ছাড় পায়নি তেমনি আওয়ামী লীগ,বিএনপি কেউ ছাড় পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন এতে করে এমপি বদি আর ভরসা পাচ্ছেন না বলেই মনে করছেন। এমপি বদি ক্রসফায়ারে ভীত নয় বলে মন্তব্য করলেও মন্ত্রীর ওবায়দুল কাদের এর মন্তব্যে তিনি আর ভরসা পাচ্ছেন না বলেই মনে করছেন অনেকে।

ঈদকে সামনে রেখে শনিবার দুপুরে তিনি আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকায় বাইপাইল-আব্দুল্লাহপুর ও নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের সার্বিক পরিস্থিতি পরিদর্শন করতে এসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন। মন্ত্রী এসময় আরও বলেন, সারাদেশে সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছে। তাই মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক অভিযান শুরু করেছে র‌্যাব এবং পুলিশ।

এই অভিযানে রাজনৈতিক একটি মহল খুশি না হতেও পারে কিন্তু দেশের মানুষ অনেক খুশি। মাদক বিরোধী অভিযানে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য বদির ব্যাপারে তিনি বলেন, বদির বেয়াই ছাড় পায়নি, মাদক ব্যবসার সাথে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ যেই অভিযুক্ত কেউই ছাড় পাবে না। অভিযোগ প্রমানিত হলে বদিও ছাড় পাবে না।

মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের এই মন্তব্যে এখন বদি সম্রাজ্যে তোলপাড় চলছে।