আজ - বৃহস্পতিবার, ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি, (শরৎকাল), সময় - সকাল ৭:৩৫

বহু যুবক বিনা অপরাধে জেলে যেতে মরিয়া!

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জেলের ভয়ে পালিয়ে বেড়ায় আসামিরা। অথচ কোনো অপরাধ না করেই জেলে যেতে ভিড় জমাচ্ছে অনেক যুবক!

অবাক করা এমন ঘটনা ঘটে চলেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের লখ্নৌয়ে।

সেখানে এক রাতের জন্য জেলে যেতে মরিয়া যুবকদের ভিড়ে বিপাকে পড়েছে সে দেশের প্রশাসন।

কেননা আদালতের আদেশ ছাড়া তো কাউকে জেলে ঢোকানো যায় না। তা ছাড়া আবেদনকারীদের কেউই কোনো অপরাধ না করেই জেল খাটতে চাচ্ছেন।

এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, প্রতি বছর লকআপে রাত কাটানোর অনুরোধ জানিয়ে প্রশাসনের কাছে বহু আবেদনপত্র জমা পড়ে।

এসব আবেদনপত্রের আর্জি একটিই- জেলে অন্তত একটি রাত কাটাতে দেয়া হোক।

বিপাকে পড়া লখ্নৌ প্রশাসন অনেক ভেবেচিন্তে একটি ব্যবস্থা বের করেছেন। তা হল পুলিশ লকআপ। সেখানেই রাখা হচ্ছে ওই সব আবেদনকারীকে।

কেনইবা লখ্নৌবাসীর থেকে এমন উদ্ভট আবেদন জমা পড়ছে, সে কারণ খতিয়ে দেখেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইম অব ইন্ডিয়া।

এর পেছনের একমাত্র কারণ জ্যোতিষীর ভবিষ্যদ্বাণী। জেলে রাত কাটাতে আগ্রহী এসব যুবককে তাদের জ্যোতিষীরা বলেছেন, এক রাত জেলে কাটাতে পারলেই কেটে যাবে জীবনের একটি ফাঁড়া।

আর সেই অনাকাঙ্ক্ষিত ফাঁড়া কাটাতেই জেল খাটার হিড়িক পড়েছে সেখানে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, পেশায় ব্যবসায়ী রমেশ সিংয়ের জন্ম কুণ্ডলীতে ছিল জেল যোগ। রমেশের পারিবারিক জ্যোতিষী তাকে বলেছিলেন- এক রাত জেলে কাটালেই তার অনির্ধারিত সময়ের জন্য কয়েদি হওয়ার দুর্ভাগ্যটা কেটে যাবে।

এ কথা শোনার পর গত এপ্রিল মাসে রমেশ জেলা প্রশাসনের কাছে জেলে এক রাত কাটানোর আবেদন করেন। তার আবেদনে সাড়া দেয় প্রশাসন। মে মাসে তিনি এক রাত কাটান পুলিশ লকআপে।

লখ্নৌয়ের জেলা প্রশাসক কৌশল রাজ শর্মা টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন, ২৪-৪৮ ঘণ্টা জেলে রাখার অনুরোধ জানিয়ে প্রশাসনের কাছে বহু আবেদন জমা পড়ে। তাদের অনুরোধের কথা মাথায় রেখে পুলিশ লকআপে রাখা হয় এসব আবেদনকারীকে।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত