আজ - সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি, (হেমন্তকাল), সময় - রাত ৪:৫০

বিজেপি’র গাড়িবহরে হামলায় বিধায়কসহ নিহত ৫

সূত্র: আনন্দবাজার :ভারতের ছত্তিশগড়ে বিজেপি’র গাড়িবহরে মাওবাদীদের হামলায় দলের বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভি এবং নিরাপত্তাবাহিনীর ৪ সদস্য নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে ছত্তিশগড়ে এ ঘটনা ঘটে।

ছত্তিশগড়ের মোট ১১টি আসনের মধ্যে বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় মাত্র একটি আসন দন্তেওয়াড়ায় ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। কারণ দন্তেওয়াড়া আসনের প্রায় পুরো এলাকাই মাওবাদীদের শক্ত ঘাঁটি। তাই ভোটের আগে নিরাপত্তার জালে মুড়ে ফেলা হয়েছিল গোটা এলাকা। 

কিন্তু এড়ানো গেল না মাওবাদী নাশকতা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে দন্তেওয়াড়ার কিরণ্ডুল এলাকায় একটি প্রচার কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন ভীমা মাণ্ডভি। প্রচার সেরে ফিরছিলেন নকুলনার এলাকায়। ফেরার পথে একটি শর্টকার্ট রাস্তা নেয় তাঁর কনভয়। সেই রাস্তাতেই নকুলনার থেকে চার কিলোমিটার আগে শ্যামগিরির কাছে হামলা চালায় মাওবাদীরা। 

পুলিশ জানায়, নকুলনারের কাছে বিধায়কের গাড়ি আসতেই তীব্র বিস্ফোরণ ঘটে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় বিধায়ক-সহ চার নিরাপত্তা কর্মীর। নিরাপত্তা কর্মীরা ছত্তীসগঢ় পুলিশে কর্মরত বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। ঘটনার পরে নিরাপত্তা কর্মীদের অস্ত্র লুঠ করে পালিয়ে যায় মাওবাদীরা। 

মাওবাদী এলাকায় প্রচারে যাওয়ার জন্য সাঁজোয়া গাড়ি (আর্মার্ড ভেহিকল) দেওয়া হয় নেতাদের। ছোটখাটো আঘাত বা বিস্ফোরণে সেই গাড়িগুলির কোনও ক্ষতি হয় না। কিন্তু বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে সেই গাড়িও কার্যত ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে বিধায়কের গাড়িটি।

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, রাস্তার বেশ কিছুটা অংশ জুড়ে তৈরি হয়েছে বড়সড় গর্ত। তা থেকেই গোয়েন্দাদের অনুমান, আইইডি বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। অন্তত ২০ কেজি বিস্ফোরক ব্যবহার করেছে মাওবাদীরা। ছত্তিশগড়ের ডিআইজি (অ্যান্টি নকশাল অপারেশনস) পি সুন্দর রাজ সংবাদ মাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন, মাওবাদী হামলায় বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভির মৃত্যু হয়েছে।

হামলার জেরে সমস্ত নির্বাচনী প্রচার স্থগিত রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল। পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে তাঁর সরকারি বাসভবনে সন্ধ্যায় বৈঠকও করেন মুখ্যমন্ত্রী।

বেশ কিছুদিন ধরেই ভোট বয়কটের ডাক দিয়ে ওই এলাকায় পোস্টার ছড়িয়েছিল মাওবাদীরা। একই সঙ্গে হুমকি দেওয়া হয়েছিল, কোনও নেতা প্রচারে এলে তাঁকে হত্যা করা হবে। কিন্তু সে সব উপেক্ষা করেই প্রচারে গিয়েছিলেন বিজেপি বিধায়ক।

বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত