মণিরামপুরের সেই বিতর্কিত লাভলুও কিনেছে আ’লীগের মনোনয়ন ফরম!

সংবাদ প্রকাশের পর ইত্তা গ্রামের মৃত হেদায়েত উল্ল্যার ছেলে খলিলের ছিনতাইকৃত বাজাজ প্লাটিনাম (ব্লু কালার) মটর সাইকেলটি ফিরিয়েও দেয় লাভলুর লোকজন।

বিশেষ প্রতিনিধি : যশোর-৫(মণিরামপুর) আসনের মনোনয়ন প্রাত্যাশী মণিরামপুর পৌর মেয়র আমজাদ হোসেন লাভলু ১০ নভেম্বর সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

উল্লেখ্য, যশোর-৫ আসনে (মণিরামপুর) দলীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, সন্ত্রাসী লালন, মাদক ব্যবসা, অস্ত্র ব্যবসা সহ নানা অপকর্মের সাথে সংশ্লিষ্ঠতা রয়েছে লাভলুর। মগের মুল্লুকের একছত্র অধিপতিও বনে গেছেন খুব অল্পদিনে। বৃহত্তর মণিরামপুরে অনুসন্ধান চলাকালে উঠে আসে এসব চাঞ্চল্যকর তথ্য। স্থানীয়দের অভিযোগ লাভলুর বিরূদ্ধে কথা বললেই কাঁধে চেপে বসে মামলার বোঝা। বিএনপি জামায়াত আখ্যা দিয়ে খোদ আ’লীগ সমর্থককেও হেয় প্রতিপন্ন করতে তার ভাবতে হয় না। হত দরিদ্র একটি পরিবার থেকে উঠে এসে অল্পদিনেই বৃত্তশালী বনে গেছেন লাভলু। এখন তাঁর প্রভাব এতটাই যে জনপ্রতিনিধি শূণ্য হয়ে পড়েছে মণিরামপুর। লাপাত্তা ও জেল হাজতে রয়েছে, ইউপি সদস্য, ইমাম, মোয়াজ্জিন, শিক্ষক।

সন্ত্রাসী পাগলা শাহিন নিহত হবার পর গোপন সূত্রে একে একে বেরিয়ে আসে লাভলুর এসব অপকর্মের তথ্য। খানজাহান আলী 24/7 নিউজ তাঁর প্রথম পর্ব প্রকাশও করে।সংবাদ প্রকাশের পর ইত্তা গ্রামের মৃত হেদায়েত উল্ল্যার ছেলে খলিলের ছিনতাইকৃত বাজাজ প্লাটিনাম (ব্লু কালার) মটর সাইকেলটি ফিরিয়েও দেয় লাভলুর লোকজন। তারপর থেকে বিভিন্ন সূত্র খানজাহান আলী 24/7 নিউজকে তথ্য দিতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় অনুসন্ধান চলছে…

২য় পর্বের অনুসন্ধান চলছে….. বিস্তারিত আসছে।

প্রথম পর্বের অনুসন্ধান :

পাগলা শাহীন সম্রাজ্যের সেকেন্ড হোম মণিরামপুর – পৃষ্ঠপোষক লাভলু!