আজ - সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - রাত ১:৩১

মা বাবা’র সাথে আরোও কিছু দিন বাঁচতে চায় শারমিন – বিত্তবানদের সহযোগীতা কামনা।

স্টাফ রিপোর্টার: যশোর সরকারি এম এম কলেজের ইন্টার দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আজরিনা শারমিন (২০)। ইচ্ছা ছিলো সকলের মতো পড়াশুনা করে একদিন অনেক বড় মানুষ হবে। পূরণ করবে বাবা-মায়ের অনেক স্বপ্ন। কিন্তু বিধি বাম। তার শরীরে বাসা বেধেছে ব্রেন টিউমার। যে সময়টাতে তার মনোযোগ দিয়ে ক্লাস করার কথা, বন্ধু-বান্ধবীদের নিয়ে মজা করার কথা, নিজের জীবনের লক্ষ্য পূরনে এগিয়ে যাওয়ার কথা, কিন্তু ঠিক সেই সময় ভাগ্যের নির্মম পরিহাসের শিকার হয়ে বেঁচে থাকার তাগিদে প্রয়াস গুনছে শারমিন। ইট পাথরের এই শহরে বই-খাতা ছেড়েছে অনেক আগেই, বর্তমান তার ঠিকানা শহরের বিভিন্ন হাসপাতালের বারান্দায়। একটু সহযোগীতার জন্যে সারাদিন সংগ্রাম শারমিন ও তার পিতা চা দোকানী ফিরোজ আহমেদ।

অনেক কষ্টে অপরের কাছ থেকে সহযোগীতা নিয়ে মেয়েকে কলেজে ভর্তি করেছেন ফিরোজ আহমেদ। তার মেয়ে এসএসসিতে ‘জিপিএ ৫’ পেয়েছে।

মরণব্যধি ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত শারমিনকে বাঁচতে হলে উন্নত চিকিৎসার জন্যে আট-নয় লাখ টাকার প্রয়োজন।

দীর্ঘদিন বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার পরেও সুস্থ হওয়ার পরিবর্তে আরো অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাকে ভারতে অপারেশনের পরামর্শ নিয়েছেন ডাক্তার। এমন অবস্থায় জরুরী ভিত্তিতে উন্নত চিকিৎসার জন্যে টাকার প্রয়োজন। কিন্তু পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম বাবা প্রথম অবস্থায় পাঁচ-ছয় লক্ষ টাকা খরচ করার পর এখন আর তার একার পক্ষে খরচ বহন করা সম্ভব না। কিন্তু তাই বলে কি আমরা শারমিনের হেরে যেতে দেখতে পারি ?

শারমিনের চাওয়াটা তো আর বেশি কিছু না শুধু সে চায় মা-বাবাকে নিয়ে পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে। আমরা কি পারি না তার এই চাওয়াটা পূরন করতে। সকলের সম্মিলিত সহযোগিতাই পারে তাকে একটি সুস্থ সাভাবিক জীবন উপহার দিতে। তার জন্যে পরিবারের পক্ষ থেকে সহযোগিতা কামনা করছেন। তাকে সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা ব্যাংক সঞ্চায় হিসাব নং-৩৪১৭৮৩১১ সোনালী ব্যাংক করপোরেট শাখা। বিকাশ ও যোগাযোগ ০১৭২৫-৩১৭০১৯ (ফিরোজ আহমেদ)।

আরো সংবাদ