যশোরের শেখহাটিতে বাবু খুন- ডাকাতির উদ্দেশ্যে খুন বলছে স্থানীয়রা।

নিজস্ব প্রতিনিধি : যশোর শহরের জামরুলতলা এলাকায় কামাল হোসেন বাবু (৪৫) নামের এক দোকানিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।
শুক্রবার সকালে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভেতর থেকে মুখ ও হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করা হয়। দোকান থেকে নগদ টাকা ও মালামাল নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

নিহত কামাল যশোর সদরের তরফ নওয়াপাড়া এলাকার মৃত শাহাদত ফকিরের ছেলে।
নিহতের ভাই আব্দুর রহিম বলেন, ‘ভোরে তাকে হত্যা করা হয়েছে এ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।’

কামাল হোসেন বাবু জামরুলতলা স মিলের পাশে মুদি কাম চায়ের দোকান চালাতেন। এছাড়া স্থানীয় কয়েকজন মিলে টাকা জমা করে নির্দিষ্ট একটি দিনে লটারির মাধ্যমে সেই টাকা একজনকে দেওয়ার দায়িত্বে ছিলেন। স্থানীয় ভাষায় একে ‘সিরিয়াল’ বলে। বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) সেই সিরিয়ালের লটারির দিন ছিল এবং তার কাছে এক লাখ টাকার মতো ছিল।

তালবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সাহাবুল আলম জানান, পুলিশ এসে কামালের মরদেহ দোকানের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে। তার মুখ স্কচটেপ দিয়ে আটকানো ছিল। এছাড়া হাত-পা বাঁধা এবং গলায় স্যালাইনের পাইপ দিয়ে বাঁধা ছিল।

‘ধারণা করা হচ্ছে, তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর দোকানে থাকা নগদ টাকা ও মালামাল নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। দোকানের ক্যাশ ড্রয়ার ও মালামাল এলোমেলো অবস্থায় রয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। কামাল হোসেন বাবু ৪ নং নওয়াপাড়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড থেকে ইউপি সদস্যপদে বিগত নির্বাচনে অংশগ্রহণও করেছিলেন।