আজ - শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - সকাল ১১:১৭

যশোরে ডিসি সহ ১১ জনের বিরূদ্ধে মামলা- সমন জারি!

যশোর প্রতিনিধি: যশোরের জেলা প্রশাসক ও হোমিও প্যাথিক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষসহ ১১ জনের নামে মামলা হয়েছে। বুধবার একই কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার একেএম মহিদুর রহমানসহ ৫ জন বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। সদর সহকারী জজ আদালতের বিচারক অভিযোগটি গ্রহণ করে বিবাদীদের প্রতি সমন জারির আদেশ দিয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, এ মামলার ৫ জন বাদীই হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক পদে কর্মরত আছেন। ২০০৫ সালের ৩১ অক্টোবর থেকে অধ্যক্ষ না থাকায় আবু নছর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি অবসরে গেলে শিক্ষকতায় ৭ বছরের অভিজ্ঞতা নিয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পান হাফিজুর রহমান। যা ছিল হোমিও বোর্ডের বিধি বহির্ভূত।

হোমিওপ্যাথিক কলেজ ১১ সদস্য বিশিষ্ট ম্যানেজিং কমিটি দ্বারা পরিচালিত হয়। সেই বিষয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নিকট আত্মীয় ও নিজের পছন্দের লোক দিয়ে অসম্পূর্ণ একটি কমিটি গঠন করে বোর্ডে অনুমতির জন্য আবেদন পাঠান। আজও তার কোনো অনুমোদন হয়নি।

বিবাদীরা হলেন, কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডাক্তার হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক বোর্ড ঢাকার রেজিস্ট্রার, কলেজের সভাপতি যশোর জেলা প্রশাসক, বোর্ড সদস্য ডাক্তার আনিসুর রহমান, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ডাক্তার আতিয়ার রহমান, ডাক্তার এসএম আব্দুল্লাহ, কলেজ কমিটির শিক্ষানুরাগী সদস্য অ্যাডভোকেট এমএ গফুর, মাহমুদুর রহমান বাহার, কম্পিউটার অপারেটর কাম অফিস সহকারী আল আমিন মৃধা, ডাক্তার আব্দুল বারী এবং আরও একজন।

বিবাদী হাফিজুর রহমান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পাওয়ার পর একাধিক ভুয়া ডিগ্রি লাগিয়ে চিকিৎসার নামে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছেন বলে তার ভিজিটিং কার্ডে উল্লেখ করা হয়েছে। প্যারামেডিকেল হোমিও কলেজ ও হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে তিনি বিভিন্নভাবে টাকা আদায় করে বিত্ত বৈভবের মালিক হয়েছেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

আরো সংবাদ