আজ - মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি, (গ্রীষ্মকাল), সময় - রাত ১১:১০

যশোরে প্রেমিকা মারপিটে মামলা

যশোরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিককে ডেকে এনে মারপিট, আটক ৩

 

যশোরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে  প্রেমিককে যশোর শহরের বারান্দীপাড়ায় ডেকে মারপিট এবং টাকা কেড়ে নেয়ার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। ভুক্তোভুগি বেল্লাল হোসেন কেশবপুর উপজেলার শ্রীরামপুর উপজেলার কেসমত আলীর ছেলে। তিনি আট জনের নাম উল্লেখ করে মামলাটি করেছেন
আটক তিনজন হলো, শহরের ঢাকা রোডস্থ খেজুর বাগান এলাকার মৃত আমিনুল ইসলামের ছেলে সজিব মিয়া ওরফে সজীব হাসান , বারান্দীপাড়া কদমতলা এলাকার রবিউল ইসলাম রানার ছেলে মুন্না ইসলাম সাগর ওরফে চায়না সাগর এবং বারান্দীপাড়া ঢাকা রোড সাহেব বাবুর বাড়ির ভাড়াটিয়া আনোয়ার হোসেনের ছেলে মোর্তজা হোসেন শুভ । এছাড়া অপর আসামিরা হলেন, সদর উপজেলার গোপালপুর গ্রামের লিয়াকত আলী বিশ্বাসের মেয়ে সোনিয়া খাতুন ,একই এলাকার আকাশ, খায়রুল , শহরের বারান্দীপাড়া লিচুতলা এলাকার আমিনুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ মিয়া , সদর উপজেলার ঘুনি পদ্মবিলা এলাকার ডাক্তারের ছেলে শুভ এবং শহরের মোল্লাপাড়া প্রাইমারি স্কুলের পাশের খোকনের ছেলে শুভ ।
মামলায় বেল্লাল উল্লেখ করেছেন, তার সাথে দুই বছর আগে মোবাইল ফোনে সোনিয়া খাতুনের সাথে পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। বিভিন্ন সময় সোনিয়া বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলাইতে থাকে। সোনিয়া মোবাইল ফোন করে জানায় তাকে বিয়ে করবে। যশোর শহরে দেখা করতে বলেন সোনিয়া। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বেলাল আসলে ওই আসামিদের দেখতে পান। তারা তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে পাশের হাসান দর্জির বাগানের মধ্যে নিয়ে যায়। এরপর তাকে আটকে রাখে। সে সময় সোনিয়া তার পকেটে থাকা পাঁচ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোনসেট কেড়ে নেয়। সে সময় তিনি বাঁধা দিলে থাকে মারপিট করা হয়। এই ঘটনা কাউকে কিছু জানালে প্রাণে শেষ করে দেয়া হবে বলে হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়।
তিনি বাড়িতে ফিরে গিয়ে লোকজনকে জানিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে খোঁজ খবর নিয়ে কোতয়ালি থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ রোববার রাতে তা মামলা হিসাবে রেকর্ড করে এবং ওই তিনজনকে আটক করে।

আরো সংবাদ