যশোরে সাপ্তাহিক বজ্রকলমের সম্পাদক সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা!

নাইম সাব্বির: সাপ্তাহিক পত্রিকা বজ্রকলমের সম্পাদক সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে। রোববার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন সদর উপজেলার কচুয়া এলাকার আলী আহম্মেদের ছেলে আরিফ হোসেন রনি।

মামলায় আসামীরা হচ্ছেন- পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক এ.কে.এম নুরুল আমিন, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আসাদুজ্জামান আশা, বার্তা সম্পাদক মোহাম্মদ আবু শাহীন ও রিপোর্টার জি.এম মিজানুর রহমান। আদালত প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতিকে তদন্ত পূর্বক রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য আদেশ দেন।

বাদি মামলার নালিশি বিবেরনে উল্লেখ করেন, গত ১৯ ফেব্রুয়ারী পত্রিকায় প্রকাশিত ‘কচুয়া জরিনা মোড়ের মাদক দ্রবের ডিলার আলী আহম্মেদ’ শিরোনামে সংবাদটিতে মানহানিকর বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে। যার কারনে তার ও তার পরিবারের সন্মানহানী ঘটেছে।

উল্লেখ ওই সংবাদে প্রকাশ করা হয়, বাদির পিতা আলী আহম্মেদ একজন মাদক ব্যবসায়ী ও চোরাকারবারী। তার নিজের মুদি দোকান রয়েছে যেখানে মুদি দোকানের আড়ালে নানা ধরনের অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। সিমান্ত দিয়ে চোরাই পথে নিন্ম মানের মাদক আসছে ও এদেশ থেকে ভারতে সিমানার পিন, তামা, পিতল, কাসা, চাইনা সুই-সুতা পাচার করছে। এসব কাজে তার ছেলে বাদি রনি, বাদির ভাই রাসেল ও চৌগাছার মাদক ব্যবসায়ী একসের বিশেষ সহযোগিতা করে আসছে বলে সংবাদে প্রকাশ করা হয়। এছাড়া এসব অবৈধ ব্যবসা করে বাদির পিতা আলী আহম্মেদ রাতারাতি কোটিপতি বনে গেছেন বলে সংবাদে উল্লেখ করা হয়। এ সংবাদ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবী করে আদালতে মামলা দায়ের করেন বাদি আরিফ হোসেন রনি।