আজ - বুধবার, ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - সকাল ১০:০৯

যশোর জেলা আ’লীগের সাবেক সম্পাদক শরীফ আব্দুর রাকিব মারা গেছেন-শাহারুল ইসলামের শোক !

নাঈম সাব্বির : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট শরীফ আব্দুর রাকিব মারা গেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) আজ রাত নয়টার সময় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালের ডাক্তাররা তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেন। এর প্রায় এক ঘণ্টা পর রাত দশটায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন ডাক্তাররা। গত রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর রাকিবকে অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন থেকে তিনি সিসিইউতে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। রাকিবের স্ত্রী সাবেক সংসদ সদস্য আলেয়া আফরোজ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। শরীফ আব্দুর রাকিবের বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর।

শরীফ আব্দুর রাকিব ( ফাইল ফটো )

গোপালগঞ্জ জেলা সদরের গোপীনাথপুরের ছেলে রাকিব ১৯৭২ সালে পড়াশুনার সূত্রে যশোর আসেন। যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন তিনি। এর পর আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দীর্ঘ পথচলা তার। একটানা ১৮ বছর তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। এরই মাঝে যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির একাধিকবার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন এই আইনজীবী। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি যশোর বারের সভাপতি ছিলেন। ছিলেন রাইটস যশোরের সভাপতিও। ছোট শ্যালক শহিদ হোসেন বাবু ও তার স্ত্রী শাওলী সুলতানা জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হন শরীফ আব্দুর রাকিব। সে সময় তিনি রাজধানীর উত্তরায় বড় মেয়ে মেহনুমা জেবিন রাখির বাসায় ছিলেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গুলশানের অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন থেকেই তিনি হাসপাতালটির সিসিইউতে ছিলেন। শরীফ আব্দুর রাকিব বেশ কয়েক বছর ধরে কিডনি জটিলতায়ও ভুগছিলেন। একদিন পর পর তাকে ডায়ালিসিস নিতে হতো। রাকিব স্ত্রী, দুই মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার স্ত্রী আলেয়া আফরোজ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন শেখ হাসিনার প্রথম সরকারের সময়। বড় মেয়ে রাখি দন্ত্যচিকিৎসক। ছোট মেয়ে নওশাবা জেবিন রিয়া বুটিক ব্যবসায়ী। দুই মেয়েই ঢাকায় বসবাস করেন। বড় জামাই আসাদুজ্জামান বাবু সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। ছোট জামাই খালিদ বিন শামস পাইলট। আলেয়া আফরোজ জানিয়েছেন, মৃত্যুসংবাদ শুনে রাকিবের স্বজনরা একে একে হাসপাতালে যাচ্ছেন। সেখানে সবার সঙ্গে কথা বলে মরদেহ কখন যশোরে আনা হবে, সে সিদ্ধান্ত নেবেন স্ত্রী আলেয়া আফরোজ।এ ব্যাপারে যশোর জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের সাথে যোগাযোগ করতে না পারায় তার পক্ষে শোক প্রকাশ করেছেন  যশোর সদর উপজেলা আ’লীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক ও ৯ নং আরবপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম। তিনি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবার  ও সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত