আজ - বুধবার, ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - সকাল ১০:৪২

যুবলীগনেতা ফারুকের মহাপ্রয়াণের ১ বছর! আজ দোয়া মাহফিল

বশিরুল আলম নান্নু: যশোর সদর উপজেলার আরবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ফারুক সর্দারের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৮ সালের ১৩ এপ্রিল নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়াবন্ধ হয়ে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিলো ৩৪ বছর। ১৯৮৪ সালের ১২ই জুলাই আরবপুর ইউনিয়নের ধর্মতলা কদমতলায় জন্মগ্রহণ করেন ফারুক সর্দার। তাঁর পুরো নাম মোহাম্মদ ওমর ফারুক সর্দার।

বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে তৃণমূলের রাজনীতির মধ্যদিয়ে রাজনৈতিক জীবনের শুভসূচনা হয় ফারুকের। যশোর জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী সদস্য ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুল ইসলামের হাতে তাঁর রাজনৈতিক জীবনের হাঁতেখড়ি।
তারপর আর পিঁছু ফিরে দেখতে হয়নি তাঁকে, যশোর সদর উপজেলা পেরিয়ে জেলা পর্যায়ে তুমুল দাপুটে রাজনীতিবীদ হয়ে ওঠেন অল্পকিছু দিনেই। যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহিন চাকলাদারের বেশ স্নেহভাজন ছিলেন তিঁনি।

জেলা উপজেলা পর্যায়ে রাজনীতি করলেও শেকড়ের টানে বার বার ফিরে যেতেন তৃণমূলে। সাধারন কর্মীদের সুখদুঃখ ভাগ করে নিতেন হরহামেশাই। ব্যাপক জনপ্রিয়তাও অর্জন করেছিলেন ফারুক সর্দার৷ তবে কোনদিন কারোও কাছ থেকে সুবিধা নেননি ক্ষণজন্মা এ রাজনীতিবীদ।

আরোও পড়ুন : যশোর পুলিশে বিপথগামীরাই শ্রেষ্ঠ অফিসার নির্বাচিত!

নিজের জন্য কিছুই করে যেতে পারেননি তিনি৷ দিনের কিছু অংশে কায়িক পরিশ্রম করে সংসার চালাতেন বাকী সময় মানুষের জন্য ব্যয় করতেন। মৃত্যুর আগ মুহুর্ত পর্যন্ত তাঁর দিনলিপিতে কোন অবসর ছিলোনা। কখনো নেতৃত্বের তাগিদে কখনো আবার নেতার নির্দেশে রাজপথে তার স্মরণীয় অবস্থান ছিলো। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের শাসনামলে দারুন নির্যাতিতও হয়েছিলেন তিঁনি।
সংগঠন কে শক্তিশালী করতে ধর্মতলার কদমতলায় নিজ অর্থায়নে সাংগাঠনিক কার্যালয় স্থাপন করেন তিঁনি। কিন্তু সে কার্যালয়ে বেশিদিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারলেন না তিঁনি।
সবশেষ ২০১৮ সালের ১৩ এপ্রিল নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়াবন্ধ হয়ে আকস্মাৎ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সদ্য বিবাহিত টগবগে সেই যুবক। ফারুক সর্দারের অকাল প্রয়াণে সর্বস্তরে শোকের ছাঁয়া নেমে আসে। সেদিন হাজার হাজার মানুষ সমবেত হয়ে তাঁকে শেষবিদায় জানায়। তাঁর জানাজায় মানুষের ঢল সেদিন বুঝিয়ে ছিলো কতটুকু কাজ মানুষের জন্য করলে শেষ বিদায়লগ্নে মানুষ তাঁকে এমন করে বিদায় জানায়৷

তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক শাহিন চাকলাদার,বীর মুক্তিযোদ্ধা খয়রাত হোসেন, শাহারুল ইসলাম, মাহমুদ হাসান বিপু, জেলা যুবলীগের মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ, জহুরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, জাহিদ হোসেন মিলন হাদিউজ্জামান চিমা, জেলা কৃষক লীগের আব্দুল মতলেব বাবু, জেলা ছাত্রলীগের আরিফুল ইসলাম রিয়াদ, আনোয়ার হোসেন বিপুল, রওশন ইকবাল শাহি, এমএম রবিউল ইসলাম, মুমেল হোসেন, মেহেদি হাসান রনি, এসএম জাভেদ প্রমুখ।
এছাড়া আরোও শোক প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিরব শোক চলছিলো যশোর জুড়ে। কারোও বন্ধু, কারোও ছোট ভাই, কারোও বড় ভাই, ইত্যাদি বন্ধনে আবদ্ধ ফারুকের মৃত্যু কেউই যেন মেনে নিতে পারছিলেন না সেদিন।

জেলা আ’লীগ সম্পাদক শাহিন চাকলাদার, আরবপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলাম ও মরহুম ফারুক সর্দার ( ফাইল ফটো)

অতঃপর দেখতে দেখতে কেঁটেগেল একটি বছর।
ফারুক সর্দারের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর রূহের মাগফেরাত কামনায় আজ শুক্রবার তাঁর নিজ বাস ভবনে বাদ আছর দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে জুম্মা বাদ মরহুমের কবর জিয়ারত ও প্রথমদফা দোয়া অনুষ্ঠিত হবে। বিকেলে নিজ বাসভবনে ভবনে তাঁর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন সস্পর্কে আলোচনা সভা ও দ্বিতীয় দফা দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী সদস্য সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগাঠনিক সস্পাদক ও আরবপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহারুল ইসলামের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে৷

আরোও পড়ুন: ময়লার ভাগাড় যশোর ডিসি অফিস চত্ত্বর – দেখার কেউ নেই।

মরহুম ফারুক সর্দারের রূহের মাগফেরাত কামনায় আয়োজিত দোয়ামাহফিলে সকলকে উপস্থিত থাকার জন্য বিণীত অনুরোধ জানিয়েছেন ফারক সর্দারের জীবদ্দশার নিকটবন্ধু হাসান কবির তাজু। একই সাথে দূরদূরান্তে অবস্থানরত সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন তিনি।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত