আজ - রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি, (বর্ষাকাল), সময় - দুপুর ১:১৭

রুপদিয়া এশিয়ান ক্লিনিকে সিজার করতে যেয়ে প্রসুতির মৃত্যু।

মহিউদ্দিন সানি, রূপদিয়া (যশোর) সংরাদদাতা।।
ত্রুটিযুক্ত অপারেশনে প্রসূতী মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে যশোর সদর উপজেলার রূপদিয়া বাজারের এশিয়ান হসপিটল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে। এদিকে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টায় সক্রিয় স্থানীয় একটি চক্র। জানাযায়,পার্শ্ববর্তী কচুয়া গ্রামের পীরতলা এলাকার ফারুক হোসেনের মেয়ে ফারিয়া বেগম (২২) প্রায় বছর পাঁচেক পূর্বে নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নের ছিলুমবাড়িয়া গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে দিনমজুর শাহাদাৎ হোসেনের সাথে বিয়ে হয়।
সংসার জীবনে তাদের ইরফান (৩) নামের এক পূত্র সন্তান রয়েছে। ফারিয়া ফের সন্তান সম্ভাবা থাকায় গত বুধবার সন্ধ্যায় রূপদিয়ার এশিয়ান হসপিটল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে ভর্তি হন। ওই দিন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে ফারিয়াকে  সিজারের জন্য অপারেশ থিয়েটারে নেয়া হয় ওই ক্লিনিকে। যথারীতি সিজারের মাধ্যমে একটি কন্যা সন্তানের জন্মদেন ফারিয়া। তবে বাচ্চা জন্ম দেয়ার পরে ফারিয়ার অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে শারীরিক অবনতী ঘটলে এখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেলে রেফার্ড করেন। সেখানে নেয়ার পর ফারিয়ার মৃত্যু হয়।
এশিয়ান হসপিটল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে ম্যানেজার তহিদুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন ফারিয়া বেগমকে বুধবার রাতে সিজারের মাধ্যমে একটি সন্তান হয়েছে। সন্তানটি সুস্থ রয়েছে। তবে ফারিয়া বেগমের অতিরিক্ত রক্তক্ষরন হওয়ায় এখান থেকে খুলনায় রেফার্ড করা হয়। শুনেছি সেখানে তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরো বলেন ফারিয়ার বেগমের সেজার করেছেন যশোর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার হাসান আব্দুল্লাহ স্যার। রোগীর স্বজনদেরকে বলা হয়েছিলো রক্ত জোগাড় করতে কিন্তু তারা ম্যানেজ করতে না পারায়। সময় মত রোগীকে রক্ত দেয়া সম্ভব হয়নি। এব্যাপারে রোগীর স্বজনদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এব্যাপারে নরেন্দ্রপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নাজমুল হাচান বলেন ঘটনাটা সুনেছি। এটা দুঃখজনক ব্যাপার তবে পারিবারের পক্ষ থেকে এখনো পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো সংবাদ