সেক্স কোনো ট্যাবু নয়: শরীফ

পাঠকের কলাম: আমাদের দেশে সেক্স বিষয়টা একটা ট্যাবু। সেক্সের কথা শুনলে সবাই লজ্জা পায়। সেক্স মানে অবৈধ সম্পর্কের কথা মনে আসে বা লিটনের ফ্ল্যাটের কথা মাথায় আসে। কিন্তু সেক্স কি আসলেই তাই? সেক্স তো খুব ন্যাচারাল আর স্বাভাবিক একটা ক্রিয়া কর্ম। আমার বাবা মা সেক্স করেছে। তাঁর বাবা মা সেক্স করেছে এবং আমার পরবর্তী প্রজন্ম সেক্স করবে। বিয়ের উদ্দেশ্য সেক্স করা,বংশ বৃদ্ধি করা কিন্তু সেক্সের উদ্দেশ্যই তো প্রধান। আমরা সবাই জানি বাসর ঘরে দুই জন অপরিচিত বা সাময়িক পরিচিত মানুষ সেক্স করবে। এটা চিরন্তন সত্য। আসলে সবই জানি কিন্তু জেনেও আমরা সেক্স বিষয়ে ছোটদের সাথে কথা বলতে লজ্জা পাই। এখনো সেক্স এডুকেশনটা সেই ভাবে ইমপ্লিমেন্ট হয়নি। ফলস্বরূপ পেডোফাইল দের সংখ্যা দিনকে দিন বেড়েই যাচ্ছে আর বাচ্চা শিশুরা ধর্ষনের পাশবিকতার শিকার হচ্ছে। আমাদের উচিৎ সেক্স বিষয়টা নিয়ে সবার সাথে খোলা খুলি আলোচনা করে। বিশেষ করে বাচ্চা দের সাথে যারা এই পাশবিকতার শিকার হচ্ছে। বাবা, মা সেক্সের বিষয় বাচ্চাদের সাথে কথা বলতে লজ্জা পায় আর এই সামান্য লজ্জা তাঁদের জীবনের কাল হয়ে দাঁড়ায়। একটা ৬ থেকে ১০ বছরের বাচ্চা কি বা বুঝে ? সে তো এটাও বুঝে না কোন অঙ্গের কাজ কি। খেলার ছলে জোর করে নানান প্রলোভন দেখিয়ে মেয়ে শিশুদের ধর্ষন করা হচ্ছে এবং তাঁদের মেরেও ফেলা হচ্ছে। যদি আমাদের বাবা, মা সেক্স এডুকেশন বিষয়ে সচেতন হত তাহলে হয়ত বা খবরের পাতায় প্রতিদিন দেখতে হত না ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষন করে হত্যা করা হচ্ছে।

সব দোষ আমাদের চিন্তা ভাবনা, মূল্যবোধ কিছুটা ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ। তবে আমি আশাবাদি সময় পাল্টাবেই। পরিবর্তন আসবেই।

লেখক: শরীফ উল হক।
সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার, রেডিও টুডে
ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর।