আজ - বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি, (গ্রীষ্মকাল), সময় - রাত ১২:১৭

স্ত্রী মর্যাদার দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান।

স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় স্বামীর বাড়ির দরজার সামনে অনশন করছে এক কিশোরী। তামান্না খাতুন (১৬) নামের ওই কিশোরী যশোরের মণিরামপুর উপজেলার টুনিয়াঘরা গ্রামের মৃত রফিকুল ইসলামের মেয়ে। শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে তামান্না কালীগঞ্জ পৌরসভার আড়পাড়া গ্রামে স্বামী মামুন হোসেনের বাড়ির সামনে অবস্থান নিয়েছে। মামুন হোসেন গ্রামটির বাসিন্দা জাকির হোসেনের ছেলে।

তামান্না জানায়, গত ২ বছর আগে মামুন মণিরামপুরে তার মামার দোকানে কাজ করতো। তখন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তাদের মধ্যে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে ১৩ মাস আগে মামুনের সাথে বিয়ের উদ্দেশ্যে কালীগঞ্জ চলে আসে। বিয়ের পর পরিবার মেনে না নেয়ায় তারা কালীগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে বাসা ভাড়া করে থাকতো। কিন্তু হঠাৎ করেই গত ঈদের আগে তাকে দাদার বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন স্বামী মামুন। বিয়ের কোনো কাগজপত্রও তার কাছে নেই।

তামান্না আরো জানায়, পাঁচ বছর আগে বাবা মারা যাওয়ার কিছুদিন পর পুনরায় বিয়ে করেন। বাবা হারা তিন ভাই বোনের ঠাঁই হয় দাদার বাড়িতে। তার ছোট দুই ভাই এতিমখানায় থেকে লেখাপড়া করে। সে নিজেও মাদ্রাসায় করিয়ানা পড়তো। কিন্তু বিয়ের করার পরে সেটাও বন্ধ। এখন স্বামীর বাড়ি ছাড়া আর কোথাও থাকার কোনো জায়গা নেই তার। স্বামী তাকে বাড়িতে না তুললে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে হবে।

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার উপরিদর্শক (এসআই) হুমায়ুন কবির জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। বাড়ির লোকজনদের ডাকাডাকি করেও কাউকে পাওয়া যায়নি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন।

আরো সংবাদ