আজ - মঙ্গলবার, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি, (শরৎকাল), সময় - রাত ৩:৫৪

নড়াইল লোহাগড়ায় গৃহবধূকে অপহরণ, থানায় মামলা না নেওয়ার অভিযোগ

নড়াইলের লোহাগড়ায় এক গৃহবধূকে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে ফুসলিয়ে নিয়ে মুক্তিপনের দাবীতে গত এক সপ্তাহ ধরে আটক করে রেখেছে নারী পাচারকারী সদস্যরা। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী উপজেলার শেখপাড়া বাতাসী গ্রামের শারিরিক প্রতিবন্ধি আশরাফ শেখ বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছে।

রোববার(৭ আগষ্ট) বিকালে লোহাগড়া সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। এসময় লিখিত বক্তব্যে আশরাফ শেখ বলেন, শেখপাড়া বাতাশী গ্রামের মকবুল মোল্যার ছেলে আশিক মোল্যা ও মাকড়াইল গ্রামের কালাম ফকিরের ছেলে এনামুল ফকির দীর্ঘদিন ধরে নারী পাচারকারী হিসেবে কাজ করে আসছে। তাদের নামে একাধিক মামলা রয়েছে।

আশিক এবং এনামুল গত ৩০ জুলাই বিকালে মোবাইল ফোনে আমার স্ত্রী স্মৃতিকে ঢাকায় চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে ফুসলিয়ে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে গত ১ আগস্ট লোহাগড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বরাবর আশিক মোল্যা, এনামুল ফকিরসহ তিন জনের নামে একটি অভিযোগ দায়ের করি। ওসি শেখ আবু হেনা মিলন আমাকে বলেন আগামি ১০ দিনের মধ্যে আমার স্ত্রীকে উদ্ধার করে দেওয়া হবে।

গত ২ আগস্ট আমার স্ত্রী ইমো নাম্বারে ফোন করে আমাকে বলে যে, নারী পাচার কারী আশিক ,এনামুল ও তাদের সহযোগিরা তাকে আটকে রেখেছে । তাদের ৩৫ হাজার টাকা মুক্তিপন না দিলে আমাকে ভারতে বিক্রি করে দেবে। এছাড়া তাকে নানাভাবে নির্যাতন করছে বলেও জানায়। আমি এ কথা শোনার পর থানায় যাই এবং মামলা করতে চাইলে ওসি সাহেব মামলা নেয়নি

প্রতিবন্ধি আশরাফ শেখ তার স্ত্রীকে উদ্ধার করে দেওয়ার জন্য প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু হেনা মিলন বলেন, অভিযোগটি মামলা হিসেবে রুজু করা হচ্ছে এবং ভিকটিমকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

আরো সংবাদ
যশোর জেলা
ফেসবুক পেজ
সর্বাধিক পঠিত